মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট, ২০২০

করোনামুক্ত হওয়ার পরদিনই মারা গেলেন আকিজ গ্রুপের পরিচালক

দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠান আকিজ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম শেখ আকিজ উদ্দিনের মেজ ছেলে শিল্পপতি শেখ মমিন উদ্দিন মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর।শেখ মমিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে আকিজ গ্রুপের একটি সূত্র জানিয়েছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার পর প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে শেখ মমিন উদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। 
রোববার তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসে। এর একদিন পরই সোমবার (২৪ আগস্ট) বিকেল ৫টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই মারা গেলেন তিনি। তার মারাত্মক ফুসফুসজনিত সমস্যা ছিলো।

ব্যবসা বাণিজ্যে অবদান স্বরূপ সিআইপি হিসেবে স্বীকৃত শেখ মমিন উদ্দিন চামড়া শিল্প প্রতিষ্ঠান এসএএফ ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও আকিজ গ্রুপের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

এসএএফের জেনারেল ম্যানেজার আবুল ইসলাম জানান, শেখ মমিন উদ্দিন গত ১২ আগস্ট করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকার আদ্ব-দীন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি স্ত্রী, তিন মেয়ে, এক ছেলেসহ অসংখ্যা গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় এসএএফের কারখানায় প্রথম নামাজে জানাজা এবং বেলা ১২টার দিকে গ্রামের বাড়ি খুলনার ফুলতলা উপজেলার বেজেরডাঙ্গা গ্রামে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।

প্রসঙ্গত, শেখ মমিন উদ্দিন রাজঘাট জাফরপুর হাইস্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। খুলনা বিএল কলেজ থেকে বিএসসি পাস করে ইংল্যান্ডে যান। সেখানকার নর্থ হ্যামটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেদার টেকনোলজিতে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন। আশির দশকে মমিন উদ্দিন অভয়নগর উপজেলার তালতলার পরিত্যক্ত এসএএফ চামড়া কারখানার দায়িত্ব নেন। এরপর তিনি রুগ্ন কারখানাটিকে আধুনিকীকরণ করে দেশ সেরা চামড়া কারখানায় পরিণত করেন। ২০০৯, ২০১০, ২০১১ সালে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য বিদেশে রপ্তানির জন্য তিনি জাতীয় রপ্তানি ট্রফি (স্বর্ণ) অর্জন করেন।