শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

সিলেটে বাইপাস সার্জারির মাধ্যমে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা হলো

সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে সফলতার সাতে প্রথম বাইপাস সার্জারী সম্পন্ন।
সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে শাহ সেলিম আহমেদ (৫৬) নামে একজন হৃদরোগীর বাইপাস অপারেশন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার শাহ সেলিম আহমেদ গত ২৫ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি হন এবং গত ২৭ নভেম্বর ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল এন্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট এর কার্ডিয়াক সার্জারী বিভাগের প্রধান, চীফ কার্ডিয়াক সার্জন এবং সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের ভিজিটিং চীফ কনসালটেন্ট অধ্যাপক ডাঃ ফারুক আহমেদ এর নেতৃত্বে একটি কার্ডিয়াক সার্জারী টিম সিলেটের মাটিতে প্রথম বারের মত সফল বাইপাস সার্জারী সম্পন্ন করেন।


উক্ত টিমে ঢাকা থেকে আগত অন্যান্যরা ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ এটিএম খলিলুর রহমান, অধ্যাপক ডাঃ ফজলে এলাহী চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ বিলকিছ বানু, সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ নয়েল সাইপ্রিয়েন গমেজ, সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ হারুন রশিদ, ডাঃ দেওয়ান ইফতেখার রেজা চৌধুরী, ডাঃ মোঃ আল মামুন, ডাঃ মাজহারুল ইসলাম শিপলু এবং ডাঃ মোঃ সুমন শিকদার।
বৃহস্পতিবার দুপুরে রোগী শাহ সেলিম আহমেদ সুস্থ্য হয়ে সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার প্রাক্কালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডশন সিলেট এর সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ এম এনায়েত উল্লাহ্, অধ্যাপক ডাঃ ফারুক আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব ছোবহানী চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ জামিল আহমেদ চৌধুরী, পাবলিসিটি সেক্রেটারী আবু তালেব মুরাদ, কার্যকরী কমিটির সদস্য আব্দুল মালিক জাকা, হাসপাতালের পরিচালক ও সিইও কর্ণেল (অবঃ) শাহ আবিদুর রহমান, উপ-পরিচালক ডাঃ মোঃ আব্দুল মুনিম চৌধুরী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার জামিল উল গণি ওসমানী, সিনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ মোহাম্মদ ইকবাল আহমেদ, কনসালটেন্ট ডাঃ রাজীব দাস এবং কনসালটেন্ট ডাঃ ফারজানা তাজিন।
এখানে উল্লেখ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত অর্থ ৯ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা এবং সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় ২ কোটি টাকা, সর্বমোট প্রায় ১২ কোটি টাকা কার্র্ডিয়াক সার্জারী ইউনিট তৈরীতে ব্যয় করা হয়।