বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

সরকারি মাছ শিকারের দায়ে গোলাপগঞ্জে যুবকের ১ বছরের কারাদন্ড

গোলাপগঞ্জের শরীফগঞ্জে কুশিয়ারা নদীর পানিয়াগা ডহরে সরকারি মৎস্য অভয়াশ্রম থেকে অবৈধভাবে মাছ ধরার সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ১ জনকে ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ১৬জনকে ৫হাজার টাকা জরিমানা (অনাদায়ে ১মাসের কারাদন্ড) প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সরকারি মৎস্য অভায়শ্রমে মাছ ধরার সময় হাতেনাতে তাদের অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। আটকের পর তাদের উপর ১৯৫০ সালের মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষণ আইন (সংশোধিত ২০০২ইং) অনুযায়ী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে সাজা ও অর্থদন্ড প্রদান করেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সুমন্ত ব্যানার্জী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ফনিন্দ্র চন্দ্র সরকার। আটককৃত ১৭জনের মধ্যে শরীফগঞ্জ ইউপির মেহেরপুর গ্রামের মৃত মাসুক মিয়ার পুত্র খুরশেদ আলম স্বপন(২৮)কে ১বছরের জেল এবং ৫হাজার টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করা হয় ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ফেঞ্চুগঞ্জ সদর ইউপির পিটাই টিকর গ্রামের মখদ্দই আলীর পুত্র হ্যাভেন মিয়া(২৮), একই উপজেলার সৈয়দ আলীর পুত্র মোঃ তাহির আলী, এশাদ আলীর পুত্র তাজ উদ্দিন (৪০), মৃত; জছির আলীর পুত্র মুফদ আলী(৭০), মোঃ মুহিদ আলীর, পুত্র চেরাগ আলী(৪০), পুতুল মিয়ার পুত্র জগলু মিয়া (৩০), কমর উদ্দিনের পুত্র আজমুল মিয়া (৩৫), হাদিস মিয়ার পুত্র ফারুক মিয়া(৩৬), ফিরোজ আলীর পুত্র ফরিদ আহমদ(৩৫),মৃত জাই উল্লাহর পুত্র মাতাব উদ্দিন(৬০),মৃত নেওয়ার আলীর পুত্র বাহার উদ্দিন(৬০), মৃত সিরিজ আলীর পুত্র আরিফ আহমদ(৩৮), মৃত ছমির আলীর পুত্র দুলাল মিয়া(৪০), বদর মিয়ার পুত্র ইকবাল হোসেন(৩৮), এবাদুল হোসেন(২৯), মছন মিয়ার পুত্র পারভেজ মিয়া(৪০)। এসময় তাদের সাথে মাছ ধরার কাজে ব্যবহৃত ৮টি নৌকা ও ২টি ১২০ হাত লম্বা বেড় জাল জব্দ করা হয়।