বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০১৯

দক্ষিণ সুরমায় রিক্সা চালক ও গোয়াইনঘাটে দিন মজুর খুন

সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমা ও গোয়াইনঘাটে পৃথক ঘুনের ঘটনা ঘটেছে। সিলেটে খুন হয়েছেন এক রিক্সা চালক ও গোয়াইনঘাটে খুন হয়েছেন এক দিন মজুর। উভয় ঘটনার মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়- দক্ষিণ সুরমায় কথা কাটাকাটির জের ধরে হামলায় সেবুল মিয়া উরফে রাজন মিয়া (৩৫) নামের একজন নিহত হয়েছেন।বুধবার (১৬ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে পিরোজপুর এলাকার হক স্টোরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সেবুল মিয়া পেশায় রিকশা চালক। তার বাড়ি বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের আকিলপুর গ্রামে। তবে প্রায় ৩ বছর থেকে দক্ষিণ সুরমা বঙ্গবীর রোডের চকের বাজার জাকির মিয়ার কলোনিতে বসবাস করছে।


                  আটক ঘাতক সোহেল আহমদ

নিহতের ভাগ্না শানুর মিয়া জানান- পার্শ্ববর্তী এলাকায় থাকার সুবাদে পিরোজপুর এলাকার হক স্টোরের মালিক জিয়াবুল মিয়ার সাথে ভালো সম্পর্ক সেবুল মিয়ার। ওই দোকানে এসে বিকিকিনিতেও মাঝে মাঝে সহযোগিতা করে সে।
ঘটনার সময়েও সেবুল মিয়া হক স্টোরে থাকাকালীন পিরোজপুর এলাকার আইন উল্লার ছেলে সুহেল আহমদ নামের একজন এসে একটি পটেটো চিপস চায়। তখন সেবুল মিয়া চিপসের প্যাকেট মুছে দিতে দোকানের মালিক জিয়াবুল মিয়ার দিকে ছুড়ে দেয়। এই ছুড়ে দেয়ার অজুহাতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে কাস্টমার সুহেল। এ নিয়ে সেবুল মিয়ার সাথে শুরু হয় কথা কাটাকাটি।
এর একটু পর সুহেল একটি পাইপ নিয়ে সেবুল মিয়ার উপর হামলা চালায়। এতে গুরুতর আহত হয় সেবুল মিয়া। এসময় রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাত সাড়ে ৯ টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খায়রুল ফজল।
এদিকে ঘটনার চার ঘণ্টার পর ঘাতক সোহেল আহমদকে দক্ষিণ সুরমা এলাকা থেকে এসআই লোকমান গ্রেফতার করেন।
অপরদিকে গোয়াইনঘাট উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় কুতুব আলী (৩২) নামের এক দিনমজুর খুন হয়েছেন। গতকাল বুধবার সকাল ৭টায় উপজেলার আলীরগাও ইউনিয়নের খাষমৌজা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কুতুব আলী ওই গ্রামের নুরুদ্দিনের পুত্র।
নিহতের পিতা নুরুদ্দিন জানান, সকালে তাদের নিজ ভূমিতে প্রতিবেশী আব্দুল জলিলের ছেলে শরীফ ও বশির লোকজন নিয়ে বাঁশ কাটতে আসে। এ সময় কুতুব উদ্দিন বাধা দেয়। তখন তারা কুতুব উদ্দিনকে উপর্যুপরি কোপাতে থাকে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাাতলে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যার দিকে চিকিৎসধাীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। হামলায় নিহত কুতুব উদ্দিনের ছোট ভাই কবির ও আহত হন।
গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল জলিল জানান, সকালে দু’পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছিল। সন্ধ্যায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কুতুব উদ্দিন নামের একজন মারা গেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং নিহতের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।