শনিবার, ২১ জুলাই, ২০১৮

এটাই হয়তো জীবনের শেষ নির্বাচন:কামরান

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, এটাই হয়তো সিলেট সিটিতে আমার জীবনের শেষ নির্বাচন। জানি না আর কতদিন বাঁচব। অতীতেও সিলেটের মানুষের পাশে ছিলাম। সুখে-দুঃখে মানুষের ডাকে সর্বদা সাড়া দিয়েছি। জীবনের শেষ সময়ে এসে নগরবাসীর উন্নয়ন ও কল্যাণে জীবন উৎসর্গ করতে চাই।শুক্রবার সিলেট নগরের দক্ষিণ সুরমার ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের কায়স্থরাইল এলাকায় নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন।কামরান বলেন, অতীতে আমাকে কারাগারে রেখে নগরবাসী এক লাখ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করেছেন। আমি এ ভালোবাসার ঋণ শোধ করতে পারিনি। আগামী দিনে জীবন দিয়ে হলেও ঋণ শোধ করার চেষ্টা করব।

বদর উদ্দিন কামরান কায়স্থরাইল ওয়াকফ এস্টেট জামে মসজিদে (দাউদপুর, মূছারগাঁও, বারখলা জামে মসজিদ) জুমআর নামাজ শেষে এলাকায় গণসংযোগ করেন। নামাজ শেষে তিনি মসজিদের ইমাম ও এলাকার মুসল্লিগণের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। মসজিদ থেকে বের হলে এলাকার গণমান্য ব্যক্তি, মুসল্লি ও দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে স্বাগত জানান। ২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বদর উদ্দিন কামরানকে হাতে তৈরি নৌকা উপহার দেয়া হয়। এ সময় ‘নৌকা, নৌকা’ স্লোগানে এলাকা মুখরিত করে তোলে কায়স্থরাইলবাসী।
গণসংযোগকালে তার সঙ্গে ছিলেন ২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমীর উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম, কায়স্থরাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ছালেক আহমদ, সাবেক সভাপতি আব্দুল আহাদ কুহিনূর, মুছারগাঁও সমাজ কল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি শেখ হামিদুল্লাহ, স্থানীয় মুরুব্বি মাসুক মিয়া, নুরুল আমীন, সমাজসেবী জিতু মিয়া, সৈয়দ আলাল আহমদ অভি, আওয়ামী লীগ নেতা জুনেদ আহমদ, নাছির উদ্দিন, আনসার উদ্দিন, চুনু মিয়া, শাহীন আহমদ, রুবেল হক, ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি আব্দুল হাফিজ নূর আলী, মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম হাসান চৌধুরী সাজন, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সৈয়দ আলাল আহমদ অভি, ২৫ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি ইফতেখার হোসেন রাহীন, এমসি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রাশেদ উদ্দিন জগলু, নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এজাজ উদ্দিন আহমদ সানী, শাবি ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল আবিদ মিলাদ, ২৫নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাজেল আহমদ প্রমুখ।