বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮

আরিফ-কামরানের ফুটবল খেলা!

বিশ্বকাপ শুরু হবে কাল থেকে। এর আগেই আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের জার্সি নিয়ে সিলেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি আরিফ ও কামরান। খেলায় ব্রাজিল দলের নেতৃত্ব দেন মেয়র আরিফুল হক। আর আর্জেন্টিনা দলের নেতৃত্বে ছিলেন সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন কামরান। দুজনেই আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। একজন বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট থেকে আর অপরজন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী।সম্ভবত দেশের আর কোথাও এমন নজির নেই। দেশের বৃহৎ দুই দলের শীর্ষ নেতাদের যেখানে মুখ দেখাদেখি বন্ধ, সেখানে সিলেটের এই রাজনৈতিক সম্প্রীতি নিঃসন্দেহে দেশের রাজনীতিবিদদের জন্য একটি অনন্য দৃষ্টান্ত।

নির্বাচনের মাঠে যাই হোক খেলার মাঠে হারাতে পারেন নি কেউ কাউকে। নির্ধারিত ৩০ মিনিটের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচটি শুরু হয় রাত ১১ টা ২৫ মিনিটে। প্রথমার্ধের খেলা গোলশূন্য থাকার পর খেলার দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে শিব্বির আহমদের গোলে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। ম্যাচের শুরুতে মাঠে নামলেও খেলা শুরুর ৩ মিনিটের মাথায় বদর উদ্দিন আহমদ কামরান নেমে যান। কিন্তু আরিফ খেলেন প্রথমার্ধের পুরো সময়।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গোল খাওয়ার পর থেকেই ব্রাজিল দল আক্রমনাত্মক খেলেও গোলের দেখা পাচ্ছিলো না। খেলা শেষের মিনিট খানেক আগে ব্রাজিলের টিপুর গোলে সমতায় ফেরে দলটি।
মেয়র পদে নির্বাচনে আশাবাদী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদও অংশ নেন এই প্রীতি ম্যাচে। আরেক সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদও ছিলেন এই ম্যাচে। ম্যাচের ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন অপর সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মাহি উদ্দিন সেলিম।
সম্প্রীতির এই ম্যাচে উভয় পক্ষে অংশ নেন ৫০ জনের অধিক খেলোয়াড়। একেক দলে ২০/২২ জন করে খেলেন একসাথে। ম্যাচে রেফারি থাকলেও নিয়মনীতি ছিল অনেকটাই শিথিল।
এছাড়াও ম্যাচে অংশ নেন সিলেটের সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মী, জনপ্রতিনিধিসহ আরো অনেকে।
মাঠে উপস্থিত দর্শকসহ সবার মধ্যে একটি উৎসবের ভাব বিরাজ করছিলো। সিলেটের এই সম্প্রীতির উদাহরন সারাদেশে ছড়িয়ে যাক এমন প্রত্যাশা উপস্থিত সবার।