শনিবার, ৫ মে, ২০১৮

মালয়েশিয়ার আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বিশেষ সাক্ষাৎকার

এম এ সামাদ: মালয়েশিয়ার ১৪তম জাতীয় নির্বাচন আগামী ৯ই মে অনুষ্ঠিত হইবে।মালয়েশিয়ার প্রধান দুই রাজনৈতিক দল মাহাথির মোহাম্মদ এর "পাকাতান হারাপান" এবং নাজিব রাজ্জাকের "বারিসান ন্যাশনাল" প্রতিদ্বন্তিতা করবে।এই বারের নির্বাচনে সবচেয়ে বড়ো চমক হচ্ছে ড.মাহাথির মোহাম্মদ অবসর ভেঙে দলের প্রধান প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন।মাহাথির বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার এর দুর্নীতি নিয়ে সব সময় কঠোর সমালোচনা করেছেন।আর নাজিব রাজ্জাক আশাবাদী বিগত ইলেকশন থেকে এইবার জনগণ তার দল কে আরো বেশি ভোট দিবেন।তার নির্বাচনী ইশতেহার আগামী ৫বছরে তিনি মালয়েশিয়াকে ২৫তম ধোনি রাষ্ট্র থেকে ২২এ নিয়ে আসবেন।তার দল আধুনিক কুয়ালা লামপুর তৈরিতে যুগান্তকারি সফলতা অর্জন করেছে।আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে আজ আমাদের মালয়েশিয়া প্রতিনিধির সাথে কথা হয় "এল এস টান" পেরাক প্রদেশের কামপার শহরের পার্লামেন্ট অপারেশন অফিস ইনচার্জ 'বারিসন ন্যাশনাল' এর সাথে যা আপনাদের জন্য প্রকাশিত হয়েছে সিলেট আজকালে।

আপনার দৃষ্টিতে জনগণের রাজনৈতিক চিন্তাধারা আগের থেকে পরিবর্তন হয়েছে:

এল এস টান:অবশ্যই।শিক্ষার হার এখন আগের তুলনায় অনেক বেশি,সোশ্যাল মিডিয়ার সময় এখন জনগণ এখন অনেক সচেতন।


আপনার দেশে এখন রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণ কি?

এল এস টান:জনগণ খুশি নয় বর্তমান প্রশাসন এর উপর।আমার ধারণা আপনি যখন ক্ষমতায় থাকবেন আপনাকে লোকে সমালোচনা করবে।

মালয়েশিয়ার নির্বাচন পদ্ধতি কি রকম?

এল এস টান:এক সময় মালয়েশিয়া ব্রিটিশ কলোনির অন্তর্ভুক্ত ছিল তাই মালয়েশিয়া এখনো ব্রিটিশদের মতো শাসন ব্যবস্থা ও রাজনৈতিক সংস্কৃতি বিদ্যমান রয়েছে।আমাদের পার্লিমেন্ট ইলেকশন এ মোট ২২২টি সিট্ এবং ১২টি রাজ্য সরকারের আরো ৫০৫ টি সিট্ রয়েছে।আসন্ন ইলেকশন এ পার্লামেন্ট প্রার্থী এবং রাজ্য সরকারি প্রার্থী নিয়ে নির্বাচন হবে।

আপনার দেশের রাজনীতিবিদের নিয়ে আপনার মন্তব্য?

এল এস টান:আমি বলবো না সবাই সৎ। এখন সোশ্যাল মিডিয়ার জোগ,কিছু লোকানো যায়না সবকিছুই এখন পাবলিক এর কাছে এক্সপোজ হয়ে যায়।এখন দুর্নীতি করলে লোকানো কঠিন।আমি মনে করি আমরা কাউকে দোষী বলতে পারিনা যতক্ষণ না তিনি কোর্ট এ দোষী প্রমাণিত হয়েছেন।তাছাড়া এখনকার রাজনৈতিক নেতৃত্বে আশা যুবকরা অনেক পেশাদার তারা সবাই উচ্চশিক্ষিত তারা দেশের জন্য কাজ করতে চায়।

এল এস টান এর সাক্ষাতকার নিচ্ছেন সিলেট আজকালের সম্পাদক এম এ সামাদ 

বিগত ইলেকশন এ ভোটারদের উপস্থিতি কেমন ছিল?

এল এস টান:গত ইলেক্শনে প্রায় ৮৪ শতাংশ ভোটার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিল।এইবারের নির্বাচনে ১৪মিলিয়ন(১কোটি৪০লক্ষ) ভোটার ভোট প্রয়োগ করবেন।আমরা আশাবাদী আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে পূর্বেরমতো জনগণ ভোট প্রয়োগ করবেন।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে আপনার মন্তব্য?

এল এস টান:খুবই প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন হবে। আমাদের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ড:মাহাথির এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে নির্বাচন কে আমাদের জন্য প্রতিযোগিতা মূলক করে তুলেছেন।এখন জনগণের প্রত্যাশা অনেক বেশি। তাই আমি মনে করি জনগণ কে নেতৃত্ব দেয়া একটি কঠিন কাজ। আমি প্রত্যাশা রাখি সুযোগ্য প্রার্থীর বিজয় হবে। আমাদের দলে নম্র ও ভালো নেতা রয়েছেন আমাদের প্রত্যাশা আমাদের দল বারিসন ন্যাশনাল নির্বাচনে আবার জয়ী হবে এবং জনগণ এর জন্য আবারও কাজ  করার সুযোগ পাবে।