বুধবার, ২৩ মে, ২০১৮

মুক্তা মনি আর নেই

সেই আলোচিত মুক্তা মনি সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে( ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)মুক্তা মনির বাবা ইব্রাহিম হোসেন মুঠোফোনে কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান আজ সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে মারা যায়। সবার কাছে মুক্তা মনির জন্য দোয়া চেয়েছেন।বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার কিশোরী মুক্তামনি (১২) মারা গেছে। আজ বুধবার ভোর সাড়ে ৭ টা ৪৫ মিনিটে নিজ বাড়িতে সে মারা যায়। মুক্তামনি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদাহ ইউনিয়নের দক্ষিণ কামারবায়সা গ্রামের ইব্রাহিম হোসেনের মেয়ে।তিনি জানান, কাল থেকে খুব অসুস্থ ছিল। সারা শরীরে যন্ত্রণা ছড়িয়ে পড়ে। আজ ভোরে একবার বমি করে। এরপর পানি খেতে চাইল। পানি আনতে আনতে সব শেষ।


উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম সহ ফেসবুকে সংবাদ প্রকাশের পর এগিয়ে আসে  স্বাস্থ্য বিভাগ। প্রথমে স্বাস্থ্য সচিব তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেন। পরে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার চিকিৎসার দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। এরপর ১১ জুলাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে মুক্তামনির চিকিৎসায় গঠিত হয় বোর্ড। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ধরা পড়ে মুক্তামনির হাত রক্তনালীর টিউমারে আক্রান্ত।

তারপর মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কয়েক দফা অস্ত্রপচার করে অপসারণ করা হয় তার হাতের অতিরিক্ত মাংস পিন্ড। কয়েক দফা অস্ত্রপাচার শেষে গত বছরের ২২ ডিসেম্বর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এক মাসের ছুটিতে বাড়ি আনা হয় মুক্তামনির। এরপর আর ঢামেক হাসপাতালে যেতে রাজি হয়নি মুক্তামনি। বাড়িতেই কোনো মতে চলছে তার চিকিৎসা। এর মধ্যে বেশ কয়েকবার বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক ডা. সামন্ত লাল সেন ও ডাক্তার শারমিন সুমির সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন মুক্তা মনির বাবা ইব্রাহিম হোসেন।