মঙ্গলবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৮

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব জনাব আনোয়ার শাহজাহান

এম এ সামাদ : যুক্তরাজ্য প্রবাসী আনোয়ার শাহজাহান একজন সু-লেখক ও সাংবাদিক। তিনি একজন সংগঠক ও সমাজসেবী হিসেবেও দেশ-বিদেশে পরিচিত। জন্ম ১৯৭৩ সালে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার রায়গড় গ্রামে।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার প্রথম লিখিত ইতিহাস গ্রন্থ 'গোলাপগঞ্জের ইতিহাস ও ঐতিহ্য' এর লেখক আনোয়ার শাহজাহান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বিভিন্ন গ্রন্থ লিখে জাতীয়ভাবে প্রশংসিত হয়েছেন, হচ্ছেন।

বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের অনন্য ইতিহাস স্বাধীনতাযুদ্ধে রাষ্ট্রীয় খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জীবনবৃত্তান্ত ও মুক্তিযুদ্ধে তাঁদের বীরত্বগাঁথা নিয়ে ৭৫৬ পৃষ্ঠায় দুটি খণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে -'স্বাধীনতাযুদ্ধে খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা'। বইটি প্রকাশের পর জাতীয়ভাবে সমাদৃত হয়েছে। এছাড়াও তিনি সিলেটে প্রথমবারের মত খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে ২০১৭ সালে প্রকাশ করেন 'সিলেটের খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা'। তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ৭ টি।




আজকাল পত্রিকার পক্ষ থেকে তার সাথে মেসেঞ্জার মাধ্যমে যোগাযোগ করলে তার বর্নাঢ্য জীবনের কিছু উল্লেখযোগ্য কথা আমাদের বলেন; চলুন তা জেনে নেই -

আনোয়ার শাহজাহান ১৯৯৫ সালে ডিগ্রি পরীক্ষার কিছুদিন আগেই ব্রিটেনে চলে যান। সেখানে প্রথমে তিনি মিডিয়া এবং বিজনেস ও ফাইনান্স এর উপর ডিপ্লোমা করেন। এছাড়াও তিনি একাউন্টটেন্সি ও প্রপার্টি সার্ভেয়ার বিষয়ে লেখাপড়া করেন।

আনোয়ার শাহজাহান ১৯৯৫ সালে লন্ডন থেকে প্রকাশিত পাক্ষিক প্রবাস এর নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালে লন্ডন ও বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত হয় মাসিক লন্ডন বিচিত্রা (১৯৯৬-২০০০)। তিনি এটির সম্পাদক ও প্রকাশক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৩ সালে ইউকে তথা ইউরোপের প্রথম অনলাইন পত্রিকা বাংলালিংক ডটকম এর সম্পাদক (২০০৩-২০১০) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে ২০১০ সাল থেকে এখন পর্যন্ত আমাদের প্রতিদিন এর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন।


২০১৪ সালে ইউকে বাংলা অনলাইন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠিত হলে তিনি এই সংগঠনের আহবায়ক এবং পরবতীর্তে সভাপতি ছাড়াও লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্য হিসেবে জড়িত আছেন।
এছাড়াও তিনি গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং ভূমি ও ভবনদাতা।

লেখালেখি ও সাংবাদিকতার পাশাপাশি আনোয়ার শাহজাহান একজন শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবী হিসেবেও সমানভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ২০০৯ সালে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন আনোয়ার শাহজাহান প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়াও তিনি গোলাপগঞ্জ হেলপিং হেন্ডস ইউকের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্যও সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৭ সালে প্রবাসী গোলাপগঞ্জবাসীদের মধ্যে পারস্পরিক সেতুবন্ধন রচনা, প্রতিবছর ব্রিটেনে বসবাসরত গোলাপগঞ্জীকে নিয়ে 'গোলাপগঞ্জ উৎসব', বিলাতে গোলাপগঞ্জের কৃতিসন্তান ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের আনুষ্ঠানিক ভাবে মুল্যায়ন করার প্রত্যয় নিয়ে গড়ে তুলেন গোলাপগঞ্জ ট্রাস্ট। তিনি এটির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্বরত।

দুই পুত্র ও দুই কন্যা সন্তানের জনক আনোয়ার শাহজাহান সাহিত্য, সাংবাদিকতা ও সমাজসেবামূলক কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ দেশ বিদেশে বেশ কয়েকটি পদক ও সম্মাননা গ্রহণ করেন।

সিলেটের আজকাল পত্রিকার পক্ষ থেকে আনোয়ার শাহজাহান দীর্ঘায়ু জীবন কামনা করছি।