শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৭

বিয়ানী বাজার এ একটি নারিকেল গাছ ও পুকুরকে ঘিরে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি, উৎসুক মানুষের ভীড়!

স্টাফ রিপোর্ট:যে গাছটি সন্ধ্যার আগেও ছিলো যথাস্থানেই। রাত পার হয়ে সকালে আবার সেই গাছটিকেই দেখা যায় একেবারে পুকুরের মাঝখানে। আর এমন ঘটনা নিয়ে স্থানীয় মানুষদের মধ্যে ব্যপক কৌতূহলের সৃষ্টি হয়েছে।সিলেটের বিয়ানী বাজার পৌরশহরের নয়াগ্রামের কুনু মিয়ার বাড়ির পুকুরপারে এই ঘটনাটি ঘটেছে।কুনু মিয়ার বাড়ির পুকুরপারের একটি নারিকেল গাছ সেদিন রাতে পুকুর পাড়ের মাটিসহ পুকুরের মাঝখানে চলে যায়। এ ঘটনায় কুনু মিয়ার ছেলে রাফি বলেন, ‘সন্ধ্যার আগেও গাছটি যথাস্থানে ছিল। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি, গাছটি পুকুরের মধ্যখানে।’আকস্মিক এক রাতেই পুকুরের মধ্যখানে একটি নারকেল গাছ সরে যাওয়া নিয়ে স্থানীয় মানুষের মধ্যে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি হয়। আর এ খবর ছড়িয়ে পড়লে গাছটি দেখতে উৎসুক মানুষের ভিড় বাড়ছে। একই সাথে পুকুরের পানি নেয়ার হিড়িক পড়েছে। অনেকের দাবি, এটা অলৌকিক ঘটনা। না হলে গাছটি সোজা হয়ে থাকে কীভাবে। প্রত্যক্ষ্যদর্শী বলেন, সন্ধ্যার আগেও গাছটি যথাস্থানে ছিল। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি, গাছটি পুকুরের মধ্যখানে।


সকাল থেকেই উৎসুক মানুষ গাছটি দেখতে ভিড় করছেন। অনেকেই বোতল দিয়ে পুকুরের পানিও নিচ্ছেন।

এদিকে এই ঘটনাটি বিশেষজ্ঞরা স্বাভাবিকভাবেই দেখছেন।বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিষয়ক প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম তরফদার জানান, এটা কোনো অলৌকিক বিষয় না। পুকুর বা নদীর পারে তাল বা নারকেল গাছ থাকে। কিন্তু বালু বা পলি মাটি হলে নিচের দিকের মাটি সরে যায়।এর ফলে গাছ এক সময় ভারসাম্য হারিয়ে দেবে যায়। এক্ষেত্রে তাই হয়েছে। পুকুর গহিন হওয়ার কারণে গাছ দ্রুত গতিতে নিচে নেমেছে বলেই গাছটি দাড়িয়ে আছে।