মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৭

বিখ্যাত ম্যাক আপ আর্টিস্ট গোলাপগঞ্জের রানী আলী

আজকাল শো-বিজ:বাঙালি চলিশোর্দ্ধ এ নারীর নাম রাণী আলী। জন্মসূত্রে বসবাস করেন যুক্তরাজ্যের লণ্ডনে। শখের বশে কাছের মানুষগুলোর হেয়ার ও মেকাপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করতেন তিনি। পরে শখের বশে করা কাজটাই পেশাগত জীবন হিসেবে গ্রহণ করলেন। Shaanmaria celebrity hair and makeup artist নামের নিজের প্রতিষ্ঠান থেকে হেয়ার এন্ড মেকাপ আর্টিস্টকে পেশা হিসেবে বেছে নেয়ার পর থেকেই সাফল্য পেতে বেশিদিন কষ্ট করতে হয়নি তাকে। ২০০৭ সালের শেষ দিক থেকে এ পেশায় তিনি সফলতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।

২০১৭ এর প্রথম দিক থেকে টালিউড, বলিউড এমনকি হলিউডের অনেক সিনেমার নায়িক-নায়িকাদের হেয়ার এন্ড মেকাপ আর্টিস্ট হিসেবেও কাজ করেছেন রাণী। যুক্তরাজ্যে যেসব ছবি মুভির শ্যুটিং হয় সেগুলোতে সাধারনত কাজ করেন তিনি। সর্বপ্রথম বলিউডের ‘কোবরা’ ছবিতে মূল আর্টিস্টদের হেয়ার এন্ড মেইকাপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেই সিনেমা জগতে তার পদার্পন। এ ছবিতে বিগবস উইনার গৌতম গেনাটি, নাবিন কুন্দ্রা, রুহি সিনহা, নায়রা ব্যনার্জি, সিনিয়র আর্টিস্ট কামাল মালিক সহ আর কয়েকজন কাজ করেছেন।



পরে করন জোহরের ‘ক্রেজি হ্যাম’ ছবির নায়িকা সোনাক্ষী সিনহা, বোমান ইরানী, লারা দত্ত সহ অন্যান্য আর্টিস্টদের হেয়ার এন্ড মেইকাপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন এ নারী। মূলত ক্রেজি হ্যাম ছবির পিছনের কাঝ করাতাই তার জীবনের মূল টার্নিং পয়েন্ট।

ঢালিউড জগতে শাকিব খান- শুভশ্রি জুটির সাথে কাজ করার পাশাপাশি সোহম, ওম, মাহিয়া মাহি সহ ঢালিউড ও টালিগঞ্জের অনেক জনপ্রিয় আর্টিস্টদের সাথে হেয়ার এন্ড মেইকাপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন।

এছাড়াও হলিউডের স্টান্ট কো-অর্ডিনেটর ক্রিসচিয়ান প্রাইসের সাথেও কাজ করেছেন তিনি।
বলিউডের কুবরা, ক্রেজি হ্যাম, ঢালিউডের চালবাজ, তুই শুধু আমার এবং দক্ষিন ভারতী ছবি রঙ দেন সহ এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি হেয়ার এন্ড মেইকাপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন পাঁচটি সিনেমায়।
রাণী আলী জন্মসূত্রে যুক্তরাজ্যে বসবাস করলেও তার পৈতৃক নিবাস বাংলাদেশে। সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাগিরঘাট গ্রামের মৃত ফাতির আলী ও নেহারুন্নেসা দম্পতির দিত্বীয় সন্তান রাণী। বাংলাদেশেও নিজ পৈতৃক বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন চারবার।
প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে রাণী আলী তার স্বপ্নের কথা জানান। তিনি বলেন, ২০০৭ সাল থেকে এই পেশায় জড়িত আছি। সকলের ভালোবাসায় এবং সহযোগীতায় আমার এতদূর আসা। বলিউডে কাজের এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি সহযোগীতা করেছেন লুবনা রফিক। তিনি আগামীতে টালিউড, বলিউড ছাড়িয়ে হলিউডে আর বেশি সিনেমাতে কাজ করতে চান।
রাণী আরোও বলেন, ‘আমি আমার জীবনে অনেক সংগ্রাম করে এখন পর্যন্ত টিকে আছি। সামনের দিনে ভালো ভালো কাজ করে এগিয়ে যেতে চাই। এক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা ও ভালোবাসাই আমার কাম্য।’
ব্যাক্তিগত জীবনে রানী আলী চার সন্তানের জননী। ২০১০ সালে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর এখন সন্তানদের নিয়ে তিনি আলাদা থাকেন।