বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকায় নিখোঁজ মেয়র শ্রীমঙ্গলে উদ্ধার



স্টাফ রিপোর্টঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ রুকনুজ্জামান রুকন ঢাকা থেকে নিখোঁজের ৫২ ঘণ্টা পর বুধবার দুপুর ১টার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় উদ্ধার হয়েছেন। বর্তমানে তিনি পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

এ বিষয়ে বিকেলে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল সাংবাদিকদের বলেন, দুপুর ১টার দিকে হঠাৎ করে শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালীঘাট ইউনিয়ন অফিসের সামনে এসে উপস্থিত হন মোহাম্মদ রুকনুজ্জামান রুকন। তার অস্বাভাবিক আচরণ দেখে ইউনিয়ন চৌকিদার অশোক কানু এবং দফাদার গৌড়লাল ভৌমিক এগিয়ে এলে তাদের জড়িয়ে ‘আমাকে বাঁচাও, আমাকে বাঁচাও’ বলতে থাকেন মেয়র রুকন।


 তাৎক্ষণিক ঘটনাটি কালীঘাট ইউপি চেয়ারম্যান প্রাণেশ গোয়ালাকে অবগত করলে তিনি তা শ্রীমঙ্গল থানার ওসি কে এম নজরুল ইসলাম এবং ইউএনও মোহাম্মদ মোবাশশেরুল ইসলামকে অভিহিত করেন। তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে মেয়র রুকনকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এ সময় পুলিশ সুপার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে মেয়রের কাছ থেকে জানা যায় একটি কালো মাইক্রোবাসে কয়েকজন লোক মুখ বাঁধা অবস্থায় তাকে এখানে ফেলে যায়।

সন্দেহভাজন কারো নাম বলছেন কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার বলেন, মেয়র এখন স্পষ্টভাবে কথা বলতে পারছেন না। তবে বলেছেন সোমবার সকালে তিনি ঢাকার উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের গাউসুল আজম রোডের বাসা থেকে স্থানীয় পার্কে হাঁটতে বের হলে কিছু লোক তাকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। কিন্তু তিনি কাউকে চিনতে পারেননি।

মেয়র এখন অনেকটা সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার। তিনি বলেন, যেহেতু উত্তরা থানায় পরিবারের পক্ষ থেকে জিডি করা হয়েছে, এ জন্য তাকে আইনি প্রক্রিয়ায় সেখানে স্থানান্তর করা হবে।

কালীঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রাণেশ গোয়ালা জানান, একটি কালো মাইক্রোবাস শ্রীমঙ্গলের ভানুগাছ রোড হয়ে চা গবেষণা কেন্দ্রের রাস্তায় প্রবেশ করে ইউনিয়ন অফিসের সামনে মেয়রকে নামিয়ে কালীঘাট চা বাগানের দিকে চলে গেছে বলে শ্রমিকরা তাকে জানিয়েছেন।

সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের গাউসুল আজম রোডের বাসা থেকে স্থানীয় পার্কে হাঁটতে বের হন জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ রুকনুজ্জামান রুকন। এরপর থেকে তার খোঁজ মেলেনি। সঙ্গে থাকা তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যায় বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।