শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

সীমান্তে চামড়া পাচার রোধে পুলিশ-বিজিবি’র কড়া প্রহরা

আজকাল রিপোর্ট:ঈদুল আজহার কোরবানির পশুর চামড়া যাতে পাচার না হয় সেজন্য ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ঈদের দিন থেকে শুরু করে পরের এক সপ্তাহ পর্যন্ত এ ব্যবস্থা বহাল থাকবে বলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সূত্রে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, প্রতিবছর সিলেট বিভাগ থেকে নির্ধারিত দামের চেয়ে অতিরিক্ত দাম দিয়ে চামড়া কিনে কোনও ধরণের প্রক্রিয়াজাতকরণ ছাড়াই সীমান্ত পথ ব্যবহার করে অধিক দামে তা ভারতে পাচার করে দেয় একটি চক্র। এবারও ইতোমধ্যে চামড়া পাচারকারী চক্রের সদস্যরা চামড়া কেনার জন্য নগদ টাকা না এনে, কয়েক ট্রাক গরু নিয়ে এসেছে সিলেট শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করার জন্য।



আর পশু বিক্রি করার টাকা দিয়ে এ চক্রটি কৌশলে সিলেট শহর, শহরতলী ও জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে অধিক মূল্যে চামড়া কিনবে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় এবার অর্ধকোটি টাকার চামড়া সংগ্রহের টার্গেট নিয়ে মাঠে নেমেছে চক্রটি।

এ ব্যাপারে বর্ডার গার্ড  বাংলাদেশ (বিজিবি) সূত্র জানায়, সিলেটের চামড়া সীমান্ত দিয়ে ভারতে যাতে পাচার না হয় সেজন্য সর্তকমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বিজিবি। চামড়া পাচারকারী চক্র আগরতলা, সরাইল, জাফলং, তামাবিল সীমান্তসহ অন্যান্য সীমান্ত দিয়ে যাতে চামড়া পাচার করতে না পারে সেদিকে কঠোর নজরদারি থাকবে। ভারতে চামড়া পাচার রোধে বিছানাকান্দি, উৎমা, সোনারহাট, কালাইরাগ, সুতারকান্দি পয়েন্টকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।