শনিবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৭

গোপনে রিকশা চালাচ্ছেন মেয়র !

আজকাল ডেস্কঃ শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ছদ্মবেশে ঘুরছেন এক ব্যক্তি। নিজেকে কখনো কৃষক, কখনো রিকশা চালক আবার কখনো সাধারণ শ্রমিক বেশে দেখা যাচ্ছে তাকে। তবে ব্যক্তিটি আর কেউ নন, তিনি চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু।

তার এই ছদ্মবেশে ঘুরাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও শুরু হয়েছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা। তবে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, যদি লোক দেখানো না হয়, মেয়রের এই উদ্যোগ অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

জেলায় ২৫ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে। এই উন্নয়ন কাজে ঠিকাদারসহ সংশ্লিষ্টরা  যাতে কোন ভাবেই এ অনিয়ম করতে না পারে তার জন্যই মেয়রের এ উদ্যোগ।

প্রথম শ্রেণীর পৌরসভায় উন্নতি হবার পর সব চেয়ে বড় উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে। ইউজিপি-৩ প্রকল্পের এই উন্নয়ন কাজের মধ্যে রয়েছে পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডের রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও সড়ক বাতি উন্নয়নের কাজ। যা গত ২৫ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে।

কাজ শুরুর পর ঠিকাদাররা যাতে কোন ভাবেই কাজে অনিয়ম ও দুর্নীতি করতে না পারে তার জন্য পৌর মেয়র ছদ্ম বেশে ঘুরছেন সে সব এলাকাতে। পৌর মেয়রের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ। তারা বলছেন পৌরসভার ইতিহাসে একজন জনপ্রতিনিধির এমন প্রশংসনীয় উদ্যোগ এর আগে কখনো দেখেনি তারা।

অনেকে আবার এটাকে ভাল কাজের দৃষ্টান্ত হিসাবেও মন্তব্য করছেন। তাদের দাবি এমন প্রশংসনীয় কাজ সারা দেশে অব্যাহত থাকলে ঠিকাদারদের অনিয়ম দুর্নীতি রোধকল্পে বড় ভূমিকা রাখবে। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও শুরু হয়েছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা।

পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু অবশ্য বলছেন, ভোটের আগে পৌরবাসীর কাছে দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষায় বদ্ধ পরিকর তিনি। পৌরবাসীর উন্নয়ন কাজে ঠিকাদারদের অনিয়ম কোন ভাবেই বরদাশত করা হবে না।

সুশাসনের জন্য অভিযান সুজনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাহাবুল ইসলাম সেলিম বলছেন, ভোটারদের কাছে প্রতিশ্রুতি রক্ষায় মেয়রের এই উদ্যোগ যদি লোক দেখানো না হয় তা হলে সুশাসন তো বটেই, ঠিকাদারদের অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধেও সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।