মঙ্গলবার, ১ আগস্ট, ২০১৭

ইউএসও'র উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত

সিলেট আজকালঃ বাড়ছে মানুষ, বাড়ছে কার্বন-ডাই-অক্সাইড, ধ্বংস করা হচ্ছে বন, কাটা হচ্ছে গাছ, অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে নতুন প্রজন্মের ভবিষ্যৎএমনই এক পরিস্থিতি যখন ভাবিয়ে তুলছে বিবেকবানদের,ঠিক তখনই "দেশের বায়ু,দেশের মাটি-গাছ লাগিয়ে করবো খাঁটি" স্লোগানকে সামনে রেখে সিলেটের ব্যতিক্রমধর্মী সামাজিক সংগঠন 'ইউনিটি সোশ্যাল অর্গানাইজেশন-ইউএসও' এর উদ্যোগে আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী জানান দিলো এক নতুন আশার! ইউএসও নির্বাহী পরিষদ-২০১৭-১৮ অর্থ বছরের প্রথম প্রজেক্ট বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর আওতায় বছর সিলেটের বেশ 'টি সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন ফলদ ঔষধি গাছের চারা রোপণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আর লক্ষ্যে আজ নগরীর পাঠানটুলাস্থ পাঠানটুলা দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় দি লাইট হাউজ স্কুলে আম,কাঠাল,লিচু,পেয়ারা,নিম,বহেরা,হরিতকি,আগর,শিমুল,মেহগনি,বেলজিয়াম সহ বিভিন্ন জাতের ফলদ,ঔষধি কাঠজাতীয় গাছের চারা রোপণ করা হয়।

ইউএসও চেয়ারম্যান জুনেদুর রহমান এর সভাপতিত্বে এবং মহাসচিব আবুল কালাম শিপলু পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন এর যৌথ পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি উদ্ভোধক হিসেবে পাঠানটুলা দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব আব্দুল মন্নান বলেন,পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে ইউএসও' উদ্যোগ নিশ্চয়ই প্রশংসার দাবীদার। আমি ইউএসও' উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি।
দি লাইট হাউজ স্কুল এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সৈয়দ আব্দুল হামিদ বলেন,বৃক্ষরোপণে ইউএসও' ব্যতিক্রমধর্মী  উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। ইউএসও' সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমি আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি!এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এইচ.আর লিটন,সিনিয়র সদস্য সাবেক ভাইস-চেয়ারম্যান এনামুল হক,সাহিত্য,ক্রীড়া বিনোদন বিষয়ক সম্পাদক শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক ইসমাঈল আহমেদ প্রমুখ।
অন্যদিকে,শহরে বৃক্ষরোপণের গুরুত্ব উল্লেখ করে সংগঠনের নীতি নির্ধারকরা বলেন, শুধু সরকারী বা বেসরকারী প্রতিষ্ঠানই নয়,শহরের বাসা-বাড়ির খালি জায়গায় গৃহকর্তার অনুমতি সাপেক্ষে বৃক্ষরোপণ করছে ইউএসও!