বুধবার, ৫ জুলাই, ২০১৭

নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে ২৫ জুয়াড়ি আটক

স্টাফ রিপোর্ট:নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযানে জুয়ার আসর থেকে ২৫ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় অভিযানে জুয়া খেলার সরঞ্জাম, নগদ টাকা ও বেশকিছু দামি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় সিলেট কতোয়ালী থানার সুরমা মার্কেট ও দক্ষিণ সুরমার লালাবাজার থেকে পৃথক অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

আটকৃতরা হচ্ছে- সিলেট জেলার শাহপরাণ থানার খাদিমপাড়া গ্রামের মালেক আহমদের ছেলে সোহেল আহমদ(২৯), গোয়াইনঘাট উপজেলার বড়গুল গ্রামের মৃত হাজী মুছাব্বির আলীর ছেলে হেমাল উদ্দিন(৩০), শাহপরাণ থানার ধলইপাড়া গ্রামের মৃত জমির হোসেনের ছেলে জজ আহমদ(২৮), মোঘলাবাজার থানার দাউদপুর গ্রামের তবারক আলীর ছেলে আহিদ জাবেদ(২১), বিমানবন্দর থানার খাসদবীর এলাকার বন্ধন এফ ২৭ এর সানাই মিয়ার ছেলে সাব্বির


আহমদ(২০), দক্ষিণ সুরমা উপজেলার লাউয়াই গ্রামের হাবিব মিয়ার ছেলে রিমন(২০), মোঘলাবাজার থানার দাউদপুর গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে আরিফ আহমদ(২২), শাহপরাণ থানার উত্তর মোকামের গুল(পীরের বাজার)গ্রামের মখলিছ মিয়ার ছেলে মো. শাহজাহান মিয়া, কুতুবপুর গ্রামের মৃত রইস আলীর ছেলে মো. বাবুল মিয়া(৩২), শেখ জুনাব আলীর ছেলে শেখ কামাল হোসাইন(২৮), আরশ আলীর ছেলে লিটন আহমদ(২০), মুছাগাও গ্রামের মাসুদ মিয়ার ছেলে নোমান আহমদ(৩০), নান্দিশ্রী গ্রামের মৃত রইছ আলীর ছেলে শাহেদ আহমেদ(২৫),  নিজ গাও গ্রামের আমির আলীর ছেলে গিয়াস উদ্দিন(৩৫), ফরিদপুরের আরফান আলীর ছেলে সোলেমান আহমদ(২৫), লালাবাজার গ্রামের আলমগীরের ছেলে মনু মিয়া(৫০), বিশ্বনাথ থানার নোয়াইর গ্রামের রাজেশ দাশের ছেলে সুমন দাশ(২৪), বিবিদইল গ্রামের মমিনের ছেলে আতাউর রহমান,  বেতসন্ধি গামের মৃত আরিছ আলীর ছেলে জাকির হোসেন ইলিয়াস(৫৫), রাজনগর গ্রামের মো. আছরাব আলীর ছেলে লিটন মিয়া(৩০), জানাইয়া গ্রামের কাঞ্চন দেবের ছেলে মৃদুল দেব(২০), সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর থানার টাকাটুকিয়া গ্রামের বিনয় পালের ছেলে সুমন পাল(২৫), জগন্নাথপুর থানার তিলক গ্রামের মৃত মো. আব্দুল মালিকের ছেলে মো. সালেহ(৩০),  ময়মনসিংহ জেলার সদর থানার মাছকান্দা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে সোহাগ(২৮), মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানার মহাজিরাবাদ গ্রামের আটন মিয়ার ছেলে মো. আলমগীর মিয়া(২২)।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার(মিডিয়া) মো. জেদান আল মূসা ২৪ জনের আটকের বিষয় নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, তার নেতৃত্বে দক্ষিণ সুরমা থানার সহাকারী পুলিশ কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুয়ার আসরে অভিযান চালিয়ে ১৪ জন জুয়াড়িকে আটক করেন। এসময়  নগদ ছয় হাজার টাকা, ১১টি মোবাইল সেট ও জুয়া খেলার সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। পরে জুয়ার আসর গুড়িয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে, কতোয়ালী মডেল থানার সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার সাদেক কাউসার দস্তগীরের নেতৃত্বে এসআই ফায়াজ উদ্দিন ফয়েজ, এসআই ইবাদুল্লাহ, এএসআই নোমান মিয়া, এএসআই অনুপ দত্ত সহ একদল পুলিশ নগরীর সুরমা মাকের্টে অভিযান চালিয়ে ১১ জনকে আটক করা হয়।এসময় জুয়া খেলার সরঞ্জাম, নগদ ২৭হাজার ৫শ ৫০টাকা ও ১২ বিভিন্ন ব্র্যন্ডের মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। আটককৃত আসামীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে জুয়া আইন ১৮৬৭ ধারাতে মামলা রুজুর প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।