বুধবার, ২৬ জুলাই, ২০১৭

ব্রিটেনের ডেপুটি মেয়রঃ সিলেটের জুলহাস

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ যুক্তরাজ্যের কেন্টের টনব্রিজ ওয়েলসের সাউথ বারা টাউন কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন সিলেট জেলার   ওসমানীনগর উপজেলার কৃতি সন্তান জুলহাস উদ্দিন। ডেপুটি মেয়র হিসেবে জুলহাস উদ্দিনের নাম প্রস্তাব করেন কাউন্সিলর আলেক্স লিউস গ্রে। তার প্রস্তাব সমর্থন করেন কাউন্সিলর ইয়ান কিংহর্ন।জুলহাস উদ্দিন ১৯৭৬ সালে সিলেটের ওসমানীনগর থানার দয়ামীরের মোহাম্মদপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব সোয়াব আলী, মা হাজেরা খানম। প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন মোহাম্মদপুর ও দয়ামীর প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে।১৯৮৮ সালে তিনি পিতা মাতার সাথে বিলেতে পাড়ি জমান।বিলেতে এসে ভর্তি হন চেস্টারশায়ারের গ্রিনফিল্ড প্রাইমারী স্কুলে। এ লেভেল সম্পন্ন করেন কেয়ারডন কলেজ থেকে। পরবর্তীতে বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন ম্যানচেস্টার মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি থেকে। কর্ম জীবনে প্রথমে এনএইচএস এর প্যাথলজি ল্যাবরেটরিতে এমেএসও হিসেবে কাজ শুরু করেন, পরবর্তীতে ইস্ট সাসেক্স এ ফার্মাসিউটিকেল ইন্ডাস্ট্রিতে যোগদান করেন। ব্যক্তি জীবনে তিন সন্তানের জনক জুলহাস উদ্দিনের স্ত্রী শাহানারা উদ্দিন একজন গৃহিণী।সমাজ সেবার অদম্য আগ্রহে জুলহাস উদ্দিন বিলেতে প্রথম থেকেই জড়িয়ে পড়েন জনহিতকর কল্যাণমূলক সামাজিক কর্মকান্ডে। তিনি টনব্রিজ ওয়েলস বাংলাদেশি ট্রাস্টের ডিরেক্টর ছিলেন একাধারে সাত বছর। কমিউনিটিতে ইংরেজি ও ইসলামিক শিক্ষার চর্চা ও প্রসারে সানডে স্কুল প্রতিষ্টায় ফান্ড রাইজিং, আটটি সেক্টর প্রতিষ্টা, বাংলাদেশী সংস্কৃতি চর্চার প্রসারে টনব্রিজ ওয়েলস বাংলাদেশী ট্রাস্টের পক্ষে জুলহাস উদ্দিন ব্যাপক অবদান রাখেন।

নিজের আগামী দিনের কর্ম পরিকল্পনা সম্পর্কে ডেপুটি মেয়র জুলহাস উদ্দিন জানান, ডেপুটি মেয়র নির্বাচিত হবার পর কাউন্সিলের পক্ষ থেকেআমরা ব্যাপক উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।সাউথ বারা কাউন্সিলকে আধুনিক রুপে গড়ে তুলতে স্থানীয় বাসিন্দাদের সকল সুযোগ  সুবিধাসম্পন্ন একটি রোডম্যাপ আমরা পাশ করেছি।

যেখানে থাকবে সাউথ বারা কমিউনিটি হাব প্ল্যান থিয়েটার, মেডিক্যাল সেন্টার,লাইব্রেরী। আমি বিশ্বাস করি বরাবরের মতো আগামী দিনেও আমি আমার প্রিয় এলাকাবাসীর দোয়া ও সমর্থন পাবো।তাদের সমর্থনে আমি মসজিদের সেক্রেটারি, ট্রাস্টের ডিরেক্টর থেকে শুরু করে কাউন্সিলর হয়েছি।বর্তমানে ডেপুটি মেয়র হয়েছি। আগামী বছর মেয়র প্যানেলে নির্বাচিত হয়ে আরো বৃহত্তর পরিসরে কাজ করবো ।