বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই, ২০১৭

সুনামগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনাঃ নিহত ১ আহত ৪

সুনামগঞ্জের সিলেট-সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের পাগলা মাদ্রাসার সামনে বাস-মটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১ জন নিহত ও ২ জন আহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির নাম মো. আকাইদ মিয়া ২৫। সে জামালগঞ্জ উপজেলার কমদরপুর গ্রামের শফিক মিয়ার ছেলে।  আহত ২ জন হলেন নতুনপাড়ার সৌরভ হোসেন ২০ ও শুভ আহমদ ১৮। আহতদের চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশসূত্রে জানা যায়, জামালগঞ্জ থেকে সিলেটগামী একটি নম্বরবিহীন মটরসাইকেল একটি বাসকে অভারটেক করতে চাইলে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি বাসের  সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে মটরসাইকেলে থাকা তিন যাত্রীই রাস্তার পাশে ছিটকে পরে। এতেই গুরুতর আহত হয় তারা। পরে স্থানীয়দের সহযোহিতায় তাদের দ্রুত ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানেই চিকিৎধীন অবস্থায় গুরুতর আহত আকাইদ মিয়া মারা যান। কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
অপরদিকে উপজেলা সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কের সদরপুর নামকস্থানে সুনামগঞ্জগামী মাইক্রো লাইটেস (ঢাকা মেট্রো চ ১১-৭৩২২) ও সিলেটগামী বাস (চট্ট মেট্রো  মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুইজন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন দিরাই উপজেলার মাতারগাঁও গ্রামের আবদুল মমিন (৬০) ও ছাতক উপজেলার চেচান গ্রামের হামিদ আলীর ছেলে জয়নূল ইসলাম (৩০)। তাদেরকেও চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
জয়কলস পুলিস ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. শাহজাহানন মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সদরপুরের ঘটনায় আমরা গাড়ি উদ্ধার করতে পারিনি। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি দেখেছেন। পাগলার ঘটনায় আমরা খরব পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ততক্ষণে স্থানীয়রা আহতদের ওসমানী মেডিক্যালে পাঠিয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। সেখানে একজন নিহত হওয়ার খবরও পেয়েছি। দূর্ঘটনা কবলিত বাস ও মটরসাইকেল আমাদের নিয়ন্ত্রনে এনেছি। হতাহতদের সম্পর্কে কেউ যোগাযোগ করলে আমরা সহযোগিতা করবো।