বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০১৭

হ্যন্ডকাপ নিয়ে পালিয়ে গেল হত্যা মামলার প্রধান আসামী

নিউজ ডেস্ক: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর থানার পুলিশ ফাঁড়ি থেকে হ্যান্ডকাপ নিয়ে পালিয়ে গেল হত্যা মামলার আসামী শফিকুল ইসলাম (৩২)সে উপজেলার বাদাঘাট উওর ইউনিয়নের দিঘীরপাড় গ্রামের মহি উদ্দিনের ছেলেজানা গেছে, তাহিরপুর থানার বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই চম্পক দাম বুধবার সন্ধা সোয়া ৬টার দিকে বাণিজ্যিক কেন্দ্র বাদাঘাট থেকে হত্যা মামলার পলাতক আসামী শফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যানফাঁড়িতে বসিয়ে রাখার পর ডিউটিরত কনষ্টেবল শাহরিয়ারকে তার আরেক সহকর্মী পানি আনতে বললে শফিকুল সন্ধা সাড়ে ৬টার দিকে হ্যান্ডকাপ নিয়ে ফাঁড়ি থেকেই পালিয়ে যায়এর আগে ফাঁড়িতে রোল কলে এসআই পরিমল সহ সকল কনষ্টেবল গণ উপস্থিত ছিলেনঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই চম্পদ দাম রাতে বলেন, আসামীকে থানায় পাঠানোর জন্য সিসি লিখে প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম, বাহিরে সেন্টির দায়িত্বে থাকা আসামী শফিকুল হ্যান্ডকাপ নিয়ে পালিয়ে যায়তাকে ফের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনিউল্ল্যেখ, বিগত ২০১৬ সালে ২ নভেম্বর রাতে উপজেলার বাণিজ্যিক কেন্দ্র বাদাঘাটের পান দোকানী মানিক মিয়াকে চাল পড়া দিয়ে চোর শনাক্তকরনে আত্বহত্যার প্ররোচনার বাধ্য করা হয়মানিকের পরিবার এরপর মানিককে নির্যাতন করে মুখে বিষ ডৈলে দিয়ে হত্যার অভিযোগে ১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসাবে এসআই চম্পক দাম ৮ জনকে অব্যাহতি প্রদাওনের আবেদন জানিয়ে প্রধান আসামী শফিকুল সহ তিন জনকে অভিযুক্ত করে দিন তিনেক পুর্বে আদালতে অভিযোগ পত্র জমা দিয়েছেন শফিকুল ওই মামলার প্রধান আসামী