শনিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৭

এ এস ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত বৃত্তি পরীক্ষা ২০১৬ পুরস্কার বিতরণী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিনিধি:এ এস ফাউন্ডেশন ১ম বৃত্তি পরীক্ষা ২০১৬ পুরস্কার বিতরণী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান গুলাপগঞ্জ উপজেলার একমাত্র কলেজ ও সর্ববৃহৎ হাই স্কুল হাজি আব্দুল আহাদ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এ অনুষ্ঠিত হয়.প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কবি ও শিক্ষাবিদ সিলেট সেন্ট্রাল ওমেন্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ জনাব কালাম আজাদ, ইংল্যান্ড প্রবাসী ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মিসবা মাসুম, স্কুলের অধ্যক্ষ জনাব আব্দুল কুদ্দুস,সহকারী প্রধান শিক্ষক ধীরঞ্জন দাস, সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল বাছিত ও প্রমুখ শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন
সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল বাসিত স্যারের উপস্থাপনে বৃত্তিপরীক্ষার সংবর্ধনা অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়.
বিশেষ অথিতির বক্তব্যে প্রবীণ শিক্ষাবিদ কালাম আজাদ বলেন: ছাত্র ছাত্রীদের উচিত শিক্ষা এবং নিজের ব্যক্তিগত আশা স্বপ্ন বাস্তবে রূপান্তরিত করা.সবার উচিত স্বপ্ন দেখা এবং বড় বা বিশেষ কিছু হবার.তিনি আশাব্যক্ত করেন বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী এবং উপস্থিত ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে থেকে কেউ হবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসার কেউ হবেন এই দেশের সরকার প্রধান কেউ বা দেশের বাইরে খ্যাতি অর্জন করবে.শিক্ষার মাধ্যমে একজন মানুষ তার কাঙ্খিত লক্ষ মাত্রায় পৌঁছাতে পারে. পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশে তিনি আরও বলেন এই পুরস্কার বিশেষ কিছু এবং নিজের অর্জন কে সম্মান করা.তিনি টুপি খুলে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান।

কবি কালাম আজাদ স্যারের বিশেষ কিছু শ্লোগান যা তিনি আজ ছাত্র ছাত্রীদের শিখতে বলেন:
*যতদিন বাঁচিব কিছু কিছু শিখবো
*কাজের মধ্যে যে মানুষ বেঁচে থাকবে তার বাঁচাই সার্থক
এ এস ফাউন্ডেশন সভাপতি ও সিলেট আজকাল এর সম্পাদক জনাব আব্দুস সামাদ বলেন:শিক্ষার্থীদের মান উন্নয়ন পরীক্ষায় ভালো মার্ক পাওয়ার জন্য শিক্ষক দের সাথে কথা বলা কিভাবে সৃজনশীল পদ্দ্বতিতে লিখতে হয় এবং ছাত্র ছাত্রীদের আরো মনোযোগী হওয়ার আহব্বান জানান।
বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের এ এস ফাউন্ডেশনের পক্ষ হইতে নগত পুরস্কার,সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।